ত্রাণ বিতরণেও সাম্প্রদায়িকতা!

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:৫১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৩, ২০১৮ | আপডেট: ১০:৫১:অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৩, ২০১৮

‘আমার মতো অনেক বাঙালি এখানে আটকে পড়েছে। আমাদের উদ্ধারের ব্যবস্থা করুন৷”‌ এমন ভাবেই নিজের বাড়িতে করা ভিডিও কলে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির কাছে আবেদন জানিয়েছিলেন বন্যাদুর্গত কেরালায় আটকে পড়া এক বাঙালি শ্রমিক। ওই বাঙালি শ্রমিকের উদ্ধারের আবেদনে সাড়া দেয় পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। রবিবার থেকে দফায় দফায় তিনটি বিশেষ ট্রেন পাঠিয়ে বাড়ি ফিরিয়ে এনেছেন আবেদন করা ওই শ্রমিকসহ কেরালায় থাকা অন্যান্য অভিবাসী শ্রমিকদের৷

শুধু বাঙালি নয় এমন ভাবে আটকে পড়া ভারতের বহু রাজ্যের অধিবাসীরা পড়েছেন বিপদে। অভিযোগ উঠেছে কেরালার স্বেচ্ছাসেবীরা খুঁজে খুঁজে মালয়ালি লোকেদের, অর্থাৎ কেরালার ভূমিপুত্রদের হাতেই ত্রাণ তুলে দিচ্ছ। এই অভিযোগ করেছেন কেরালার অভিবাসী বাঙালি, ওড়িয়া এবং অসমীয়া শ্রমিকরা। ইচ্ছাকৃতভাবেই যারা মালয়ালি নয় তাদের এড়িয়ে যাচ্ছে স্বেচ্ছাসেবীরা। খবর ডয়েচ ভেলের।

জানা যায়, পর্যটকপ্রিয় কেরালার আতিথেয়তা ব্যবসার এক বড় কর্মশক্তি বিভিন্ন রাজ্যের কর্মীরা। ওড়িশা, আসাম, পশ্চিমবঙ্গ সহ ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের অনেক মানুষ কাজ করেন কেরালার বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রের হোটেলগুলোতে।

উল্লেখ্য,কেরালায় সৃষ্ট ভয়াবহ বন্যায় এ পর্যন্ত ৩২৪ জন নিহত হয়েছে এবং লাখ লাখ মানুষ তাদের বাড়িঘর ছেড়ে আশ্রয়শিবিরে আশ্রয় নিয়েছেন।