যমুনা ফিউচার পার্কে ভারতীয় ভিসা কেন্দ্র উদ্বোধন

প্রকাশিত: ১১:৪২ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১৪, ২০১৮ | আপডেট: ১১:৪২:পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১৪, ২০১৮

টিবিটি জাতীয়: সর্ববৃহৎ শপিংমল যমুনা ফিউচার পার্কে উদ্বোধন করা হল ভারতীয় ভিসা কেন্দ্র। শপিংমলের গ্রাউন্ড মাইনাস-১ (বেজমেন্ট বি-১) দক্ষিণ কোর্টে এ কেন্দ্রটি বেলা ১১টার পর উদ্বোধন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ও ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং।

এটি উদ্বোধনসহ কয়েকটি উপলক্ষ ঘিরে তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শুক্রবার ঢাকায় এসেছেন। ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশন সূত্র জানিয়েছে, প্রায় সাড়ে ১৮ হাজার বর্গফুটজুড়ে নতুন এ কেন্দ্রে একই সময়ে ৭০০ লোক অবস্থান করতে পারবেন।

৪৮টি কাউন্টারে ভিসাপ্রত্যাশীদের সেবা দেয়া হবে। প্রতিদিন অন্তত ৬ হাজার ব্যক্তি পাসপোর্ট জমা দিতে পারবেন। সূত্র বলছে, নতুন এ ভিসা আবেদন কেন্দ্রটি হবে ‘মডেল ভিসা কেন্দ্র’। সব ধরনের ভিসার আবেদন করা যাবে।

সুপরিসর এ কেন্দ্রে থাকছে কম্পিউটার নিয়ন্ত্রিত টোকেন ভেন্ডিং মেশিন (প্রতীক্ষা সময় নির্দেশিত), আরামদায়ক বসার ব্যবস্থা, কফি ও কোমল পানীয় ভেন্ডিং মেশিন ও খাবার সুবিধা।
জ্যেষ্ঠ নাগরিক, নারী, মুক্তিযোদ্ধা ও ব্যবসা ভিসা আবেদনের জন্য আলাদা কাউন্টার থাকছে। একটি বিশেষ সহায়তা ডেস্ক এবং প্রিন্টিং, ফটোকপি ইত্যাদি সেবার জন্যও থাকছে বিশেষ কাউন্টার।

সূত্রমতে, মতিঝিল ও উত্তরায় অবস্থিত ভিসা আবেদন কেন্দ্র আগামীকাল রোববার থেকে যমুনা ফিউচার পার্ক কেন্দ্রে প্রতিস্থাপিত হবে। গুলশান ও মিরপুর রোড ভিসা আবেদন কেন্দ্র ৩১ আগস্টের মধ্যে স্থানান্তরিত হবে এখানে। এর পর থেকে ঢাকায় এটিই হবে একমাত্র ভিসা আবেদন কেন্দ্র। পূর্বনির্ধারিত সাক্ষাৎকার সূচি (ই-টোকেন) ছাড়াই এখানে ভিসার আবেদন করতে পারবেন ভিসাপ্রত্যাশীরা।

যমুনা ফিউচার পার্ক সর্বাধুনিক, কেন্দ্রীয়ভাবে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ও সর্বোচ্চ নিরাপত্তাবেষ্টিত শপিংমল। এর মধ্যে এ ভিসা সেন্টার চালু হওয়ার খবরে ভিসাপ্রত্যাশীদের মধ্যে আনন্দ বিরাজ করছে।

এতদিন রাজধানীর ভিসাপ্রত্যাশীরা রোদ-বৃষ্টি-ঝড় উপেক্ষা করে নানা দুর্ভোগের মধ্যে ঘণ্টার পর ঘণ্টা ভিসা সেন্টারগুলোর বাইরে লাইনে দাঁড়িয়ে আবেদন জমা ও পাসপোর্ট সংগ্রহ করে আসছিলেন। এ দুর্ভোগ থেকে মুক্তি মিলবে এখন।

ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনের অ্যাটাশে কর্মকর্তা রঞ্জন মণ্ডল শুক্রবার জানান, বিশ্বের তৃতীয় ও এশিয়ার সর্ববৃহৎ শপিংমল যমুনা ফিউচার পার্কে এ ভিসা সেন্টারটি হওয়ায় আমরা যেমন আনন্দিত, তেমনি ভিসাপ্রত্যাশীরাও আনন্দিত। আমরা সাধারণ লোকজনকে আরও বেশি ও আরামদায়ক সেবা দিতে পারব।

নতুন এ ভিসা কেন্দ্রে ঢাকায় বিদ্যমান ভিসা আবেদন কেন্দ্রগুলো প্রতিস্থাপিত হবে। একই সঙ্গে ভারতীয় ভিসা আবেদন জমা দেয়ার জন্য বিদ্যমান ই-টোকেন ব্যবস্থাও প্রত্যাহার করা হবে।

কর্তৃপক্ষ বলছে, ভারতীয় ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া আরও সহজ ও সমন্বিত করা এবং ভারত-বাংলাদেশের মানুষে মানুষে সম্পর্ক শক্তিশালী করার জন্য ভারতীয় হাইকমিশনের অব্যাহত প্রচেষ্টার প্রতিফলন এ কেন্দ্র। এটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে ভারতীয় স্টেট ব্যাংকের সহযোগিতায়।


ad