ফ্রান্সের জেতা ফুটবলের জন্য কল্যাণকর নয়!

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:২৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ১২, ২০১৮ | আপডেট: ৯:২৬:অপরাহ্ণ, জুলাই ১২, ২০১৮

বেলজিয়ামের গোলরক্ষক কর্তোয়ার মতে, মঙ্গলবার প্রথম সেমিফাইনালে ফ্রান্স যেভাবে জিতেছে, সেটা ফুটবলের জন্য কল্যাণকর নয়।

কর্তোয়া একা নন, এডেন হ্যাজার্ডও ১-০ গোলে এগিয়ে যাওয়ার পরই খুব বেশি রক্ষণাত্মক হয়ে যাওয়ায় `৯৮ -এর চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের কঠোর সমালোচনা করেছেন। বেলজিয়ামের এক দৈনিককে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কর্তোয়া বলেছেন, ‘ফ্রান্স যেমন খেলেছে তা ফুটবলবিরোধী। একজন স্ট্রাইকারকে (জিরুড) প্রতিপক্ষের গোলপোস্ট থেকে এত দূরে খেলতে দেখার অভিজ্ঞতা আমার আগে কখনো হয়নি।’ তারপরই তিনি টেনে এনেছেন ব্রাজিলের প্রসঙ্গ৷ ব্রাজিল যে টুর্নামেন্টের কোনো ম্যাচে অতি রক্ষণাত্মক খেলে জয় নিশ্চিত করেনি, এমনকি কোয়ার্টার ফাইনালে বেলজিয়ামের কাছে হেরে যাওয়া ম্যাচেও দেখিয়েছে আক্রমণাত্মক ফুটবলের সৌন্দর্য, সেদিকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, ‘ফ্রান্স গোল রক্ষা করতে পেরেছে। ব্যাস, ওইটুকুই। আর বড় কথা হলো, তাতে তাদের জয়ও নিশ্চিত হয়েছে। তবে আমি মনে করি, ফাইনালে ফ্রান্স না গিয়ে ব্রাজিল গেলেই ভালো হত।’

কর্তোয়ার মতো এডেন হ্যাজার্ডও মনে করেন, ফ্রান্সের জয়ে মহিমার বড় অভাব। বেলজিয়ামের অধিনায়কের মতে, ‘এই ফ্রান্সের বিপক্ষে জেতার চেয়ে আমার তো মনে হয় এই বেলজিয়ামের কাছে হেরে যাওয়াও ভালো।’

৫১ মিনিটে উমতিতির হেডে এগিয়ে যাওয়ার পর থেকে ফ্রান্স সত্যিই খুব বেশি রক্ষণাত্মক হয়ে যায়। জিরুদ, গ্রিসমানদেরও দেখা গেছে রক্ষণ কাজে নিজেদের উজাড় করে দিতে। ফ্রান্সের এই কৌশলে কর্তোয়া এতটাই ক্ষিপ্ত যে ‘স্পোর্ৎসা` নামের আরেক পত্রিকাকে তিনি বলেছেন, ‘কর্ণার থেকে হেডে একটা গোল আদায়ের পর শুধু নিজেদের গোলই সামলে গেছে ফ্রান্স। আমার কাছে মনে হচ্ছে, কোয়ার্টার ফাইনালে ব্রাজিলের কাছে হেরে যাওয়াই ভালো ছিল, অন্তত ওরা তো এমন একটা দল যারা ফুটবলটা খেলতে চেয়েছে।’

সূত্র: ডয়চে ভেলে